যুব বিশ্বকাপের এবারের আসরের শুরুটা ভাল হলেও কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতের কাছে হেরে গিয়ে নক আউট থেকে ছিটকে যায় বাংলাদেশ। এরপর লক্ষ্য ছিল অনন্ত পঞ্চম স্থান দখল করা আর সেই লক্ষ্যে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে বাধাও পেরিয়েছিল সাইফরা। কিন্তু বুধবার ব্যাটিং ব্যর্থতায় শেষ পর্যন্ত ৬ষ্ঠ স্থান নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হলো বাংলাদেশ যুবাদের।

কুইন্সটাউনে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই প্রোটিয়া যুবাদের বোলিং তোপে পড়ে বাংলাদেশ। দলীয় ৩৩ রানে টপ অর্ডারের ৫ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে বাংলাদেশ যুবারা। তবে এক প্রান্ত আগলে ছিলেন আফিফ হোসেন। ষষ্ঠ উইকেটে শাকিল হোসেনকে নিয়ে ১০৮ রানের জুটি গড়ে কিছুটা আশার সঞ্চার করলেও শেষ পর্যন্ত ইনিংসের ৫০ বল বাকি রেখেই সাইফরা অলআউট হয় মাত্র ১৭৮ রানে।

আফিফ ৬৩ ও শাকিল ৬১ রান সংগ্রহ করেন। প্রোটিয়াদের হয়ে ফ্রাসের জোন্স মাত্র ৩৩ রান দিয়ে ৫ উইকেট নেন। জয়ের জন্য ১৭৯ রানের লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নেমে অধিনায়ক রায়নার্ড ভ্যান টোন্ডারের ৮২ ও হারমান রোলফের ৪৪ রানে উপর ভর করে ৩৮.৩ বলে মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে জয় নিশ্চিত করে দক্ষিন আফ্রিকা যুবারা।

ফ্রাসের জোন্স ম্যান অব দি ম্যাচ নির্বাচিত হন। এর ফলে যুব বিশ্বকাপের এবারের আসরে ৬ষ্ঠ স্থান নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হলো বাংলাদেশ যুবাদের আর দক্ষিন আফ্রিকার ভাগ্যে জুটল ৫ম স্থান।