তিনটি নতুনত্ব দেখা যাবে বিগ ব্যাশ লিগে

নট আউট ডেস্ক
সোমবাব , ১৬ নভেম্বর, রাত ৯:৩০

অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লীগ বিগ ব্যাশের দশম আসরে এবার থাকছে নতুনত্ব। প্রযুক্তির কল্যানে নতুন তিন সংযোজন হচ্ছে এবারের বিগ ব্যাশে। পাওয়ার সার্জ, এক্স-ফ্যাক্টর ও ব্যাশ বুস্ট নামের নতুন তিন নয়া প্রযুক্তি আনতে চাচ্ছে তারা। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া আজ (সোমবার) এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ক্রিকেটকে সবার কাছে আরো আকর্ষণীয়, উত্তেজনা ও নতুন মাত্রা যোগ করতে এই নিয়মগুলো সহায়ক হবে বলেই মনে করছেন আয়োজকরা। 

অধিনায়ক-কোচেদের সিদ্ধান্ত গ্রহণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে এই তিন সংযুক্তি। এছাড়াও ক্রিকেটারদের সার্বিক সম্পৃক্ততা বাড়বে এর মাধ্যমে। এই পরিবর্তনগুলো আনা হয়েছে বিগ ব্যাশের পরামর্শক ট্রেন্ট উডহিলের কল্যানে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে বিভিন্ন ভূমিকায় কাজ করা উডহিল গত অগাস্টে যোগ দিয়েছেন বিগ ব্যাশের পরামর্শক হিসেবে। নতুন এসব সংযুক্তি ক্রিকেটকে আরও এগিয়ে নেবে বলেই বিশ্বাস উডহিলের।

পাওয়ার সার্জঃ এর ফলে টি-টোয়েন্টির নিয়ম অনুযায়ী ইনিংসের প্রথম ৬ ওভারের পাওয়ার প্লে থাকছে না আর। তার বদলে ইনিংসের শুরুর ৪ ওভারই থাকবে বাধ্যতামূলক পাওয়ার প্লে। বাকি দুই ওভার ব্যাটিং দল ১০ ওভার পর যে কোনো সময় নিতে পারবে। এই দুই ওভারের নাম দেওয়া হয়েছে ‘পাওয়ার সার্জ।’ এই দুই ওভারে ৩০ গজ সার্কেলের ভেতরে ও বাইরে ফিল্ডার রাখার নিয়ম পাওয়ার প্লের মতোই থাকবে।

এক্স ফ্যাক্টরঃ একটা সময় আন্তজার্তিক ক্রিকেটে ‘সুপার-সাব’ এর সংযুক্তি করা হলেও সফল হয়নি সেই পরীক্ষা। বাতিল হয়ে যাওয়া ‘সুপার-সাব’ সংযুক্তি নতুন করে নতুন মোড়কে দেখা যাবে এবারের বিগ ব্যাশে। প্রথম ইনিংসের ১০ ওভারের পর চাইলে ক্রিকেটার বদল করে নিতে পারবে দুই দলই। তবে সেই ক্রিকেটারকে বদল করা যাবে তালিকার দ্বাদশ বা ত্রয়োদশ খেলোয়াড় থেকে। প্রথম ১১ ওভারের মধ্যে যে ক্রিকেটার ব্যাট করেননি কিংবা ১ ওভারের বেশি বল করেননি, তাকেই বদল করে বদলি ক্রিকেটার নামাতে পারবে। মূলত ক্রিকেটারদের চোটের চিন্তা মাথায় রেখেই এই নতুনত্ব আনা হয়েছে।

ব্যাশ বুস্টঃ ম্যাচ জিতলে এখন থেকে দুই পয়েন্টের জায়গায় সুযোগ থাকবে চার পয়েন্ট জয়ের। তবে ম্যাচে জয়ী দলের জন্য থাকছে তিন পয়েন্ট। বাকি এক পয়েন্ট জয়ের সুযোগ থাকবে দুই দলেরই। এই ‘ব্যাশ বুস্ট’ পয়েন্ট নির্ধারন করা হবে দ্বিতীয় ইনিংসের প্রথম ১০ ওভার পর। ইনিংসের প্রথম ১০ ওভারে যে দলের রান বেশি থাকবে, তারাই পাবে ওই এক পয়েন্ট।

বলাই যায় টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে নিত্যনতুন স্বাদ এনে দিতে বিগ ব্যাশের জুড়ি মেলা ভাড়। তাই বিগ ব্যাশ ভক্তদের মাঝে নতুনত্ব নিয়েই হাজির হতে চলছে। এখন দেখার বিষয় বিগ ব্যাশে কতটা ভূমিকা রাখে নতুন এই তিন সংযুক্তি। 

 

নট আউট / টিএ


ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া
৩য় ওয়ানডে, ক্যানবেরা
২ ডিসেম্বর ২০২০, সকাল ৯ঃ৪০
ভারতের অস্ট্রেলিয়া সফর, ২০২০/২১

ফরচুন বরিশাল বনাম বেক্সিমকো ঢাকা
৯ম ম্যাচ, মিরপুর, ঢাকা
২ ডিসেম্বর ২০২০, দুপুর ১ঃ৩০
বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপ, ২০২০

মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী বনাম গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম
১০ম ম্যাচ, মিরপুর, ঢাকা
২ ডিসেম্বর ২০২০, সন্ধ্যা ৬ঃ৩০
বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপ, ২০২০

ওয়েষ্ট ইন্ডিজ বনাম নিউজিল্যান্ড
১ম টেষ্ট, হ্যামিল্টন
০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ভোর ৪টা
ওয়েষ্ট ইন্ডিজের নিউজিল্যান্ড সফর, ২০২০

গল গ্ল্যাডিয়েটরস বনাম জাফনা স্টেলায়ন্স
৯ম ম্যাচ, হাম্বানটোটা
০৩ ডিসেম্বর ২০২০, বিকাল ৪টা
এলপিএল, ২০২০

ডাম্বুলা ভাইকিংস বনাম ক্যান্ডি তুস্কার্স
১০ম ম্যাচ, হাম্বানটোটা
০৩ ডিসেম্বর ২০২০, রাত ৮:৩০
এলপিএল, ২০২০
ইংল্যান্ড 9 উইকেটে জয়ী।
৩য় টি-টুয়েন্টি, কেপটাউন
দক্ষিন আফ্রিকা 191/3 (20.0)
ইংল্যান্ড 192/1 (17.4)
১ ডিসেম্বর ২০২০, রাত ১০টা
ইংল্যান্ডের দঃ আফ্রিকা সফর, ২০২০
জাফনা স্টেলায়ন্স 54 রানে জয়ী।
৮ম ম্যাচ, হাম্বানটোটা
জাফনা স্টেলায়ন্স 185/8 (20.0)
ক্যান্ডি তুস্কার্স 131/10 (17.1)
০১ ডিসেম্বর ২০২০, রাত ৮:৩০
এলপিএল, ২০২০
ডাম্বুলা ভাইকিংস 28 রানে জয়ী।
৭ম ম্যাচ, হাম্বানটোটা
ডাম্বুলা ভাইকিংস 175/9 (20.0)
কলম্বো কিংস 147/10 (18.4)
০১ ডিসেম্বর ২০২০, বিকাল ৪টা
এলপিএল, ২০২০
ক্যান্ডি তুস্কার্স 25 রানে জয়ী।
৬ষ্ঠ ম্যাচ, হাম্বানটোটা
ক্যান্ডি তুস্কার্স 196/5 (20.0)
গল গ্ল্যাডিয়েটরস 171/7 (20.0)
৩০ নভেম্বর ২০২০, রাত ৮:৩০
এলপিএল, ২০২০
জেমকন খুলনা 37 রানে জয়ী।
৮ম ম্যাচ, মিরপুর, ঢাকা
জেমকন খুলনা 146/8 (20.0)
বেক্সিমকো ঢাকা 109/10 (19.2)
৩০ নভেম্বর ২০২০, সন্ধ্যা ৬ঃ৩০
বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপ, ২০২০
জাফনা স্টেলায়ন্স 66 রানে জয়ী।
৫ম ম্যাচ, হাম্বানটোটা
জাফনা স্টেলায়ন্স 218/7 (20.0)
ডাম্বুলা ভাইকিংস 152/10 (19.1)
৩০ নভেম্বর ২০২০, বিকাল ৪টা
এলপিএল, ২০২০