প্রচ্ছদ / সর্বাধিক আইপিএল মাতানো ভিনদেশী পঞ্চপাণ্ডব

সর্বাধিক আইপিএল মাতানো ভিনদেশী পঞ্চপাণ্ডব

মুহাম্মদ আশিক সৈকতঃ আইপিএলকে বলা হয় বিশ্বের সবথেকে জনপ্রিয় ফ্রাঞ্চাইজি ট্যুর্নামেন্ট। জনপ্রিয় হবেই বা না কেন? বিশ্বের বাঘা বাঘা ক্রিকেটাররা মুখিয়ে থাকেন আইপিএলে ম্যাচ খেলার জন্য। এতে মোটা অঙ্কের পয়সার ঝনঝনানি যেমন আছে, তেমনি এই ট্যুর্নামেন্ট যেকোন ক্রিকেটারের জন্যই নিজের সামর্থ্য প্রমাণের সবথেকে উপযুক্ত মঞ্চ। টিম কম্বিনেশনর চিন্তা মাথায় রেখে এত এত প্রতিভাবান ক্রিকেটারের ভীড়ে একাদশে নিয়মিত জায়গা পাওয়াটা বেশ কষ্টসাধ্যই বটে! আর বিদেশী ক্রিকেটার হলে তো কথাই নেই। একাদশে চারজন বিদেশী ক্রিকেটারের কোটায় সুযোগ পাওয়ার জন্য যেন রীতিমতো সংগ্রাম করতে হয়।

 

তবে এতকিছুর মাঝেও আইপিএল ইতিহাসে এমন বেশ ক'জন বিদেশী ক্রিকেটার আছেন, যারা এই জনপ্রিয় ট্যুর্নামেন্টে বিভিন্ন ফ্যাঞ্চাইজির হয়ে একশ'র ওপর ম্যাচ খেলেছেন। আজ আমরা শীর্ষ পাঁচজন বিদেশী ক্রিকেটার সম্পর্কে জানবো, যারা এখন পর্যন্ত আইপিএলে সর্বোচ্চ সংখ্যক ম্যাচে মাঠে নেমেছেন-

 

১. এবিডি ভিলিয়ার্স (১৬৯ ম্যাচ)

ওয়ানডে ক্রিকেটের দ্রুততম সেঞ্চুরির মালিক এই দক্ষিণ আফ্রিকান উইকেটকিপার - ব্যাটসম্যান এখন অব্দি বিদেশী ক্রিকেটার হিসেবে আইপিএলে সর্বাধিক ম্যাচ খেলেছেন। মিস্টার ৩৬০° খ্যাত এই হার্ড হিটার ব্যাটসম্যান ব্যাট হাতে ১৫১.৯১ স্ট্রাইক রেটে ৪০.৪০ গড়ে করে সর্বমোট রান করেছেন ৪৮৪৯ (সেঞ্চুরি ৩ টি, হাফ সেঞ্চুরি ৩৮ টি), ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংসটি ১৩৩* রানের। আসন্ন আইপিএলে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের হয়ে মাঠ মাতাবেন এই প্রোটিয়া উইলোবাজ।

 

২. কাইরন পোলার্ড (১৬৪ ম্যাচ)

২০১০ সালে আইপিএলে অভিষিক্ত হওয়া এই ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডারকে মুম্বাইয়ের 'ঘরের ছেলে' বললেও বোধহয় ভুল হবেনা। কারণ, শুরু থেকে এখন অব্দি তিনি যে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এর হয়েই মাঠ মাতিয়ে আসছেন, ব্লু জার্সিতে জিতেছেন পাঁচ পাঁচটি আইপিএল শিরোপা! ব্যাট হাতে ২৯.৯৩ গড়ে করা রানসংখ্যা ৩০২৩, যাতে রয়েছে ১৫ টি হাফ সেঞ্চুরির মার, সর্বোচ্চ ইনিংসটি ৮৩ রানের। এছাড়া ১৪৯.৮৮ স্ট্রাইকরেট প্রমাণ করে দেয়, মিডল অর্ডারে ব্যাট হাতে কতটা কার্যকর তিনি। বল হাতেও মুম্বাইকে বহু ম্যাচে জিতিয়েছেন। ৩২.৬৭ গড়ে ৬০ উইকেট নেওয়াটা তারই সচিত্র বহিঃপ্রকাশ।

 

৩. শেন ওয়াটসন (১৪৫ ম্যাচ)

আইপিএলে চার চারটি সেঞ্চুরি, ২১ টি হাফ সেঞ্চুরির সাথে বল হাতে ৯০ টি উইকেট শিকার করা এই অজি ব্যাটিং অলরাউন্ডার মোট তিনটি ফ্রাঞ্চাইজির হয়ে আইপিএলে মাঠে নেমেছেন। ৩৯ বছর বয়সী সাবেক রাজস্থান রয়্যালস ক্যাপ্টেনের ৩০.৯৯ ব্যাটিং গড়ের পাশাপাশি বোলিং গড় ২৯.১৫, বেস্ট বোলিং ফিগার ৪/২৯। আর স্ট্রাইক রেট? সেটা ১৩৭.৯১।

 

৪. ডেভিড ওয়ার্নার (১৪২ ম্যাচ)

বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা হার্ডহিটার ওপেনার মনে করা হয় ডেভিড ওয়ার্নারকে। ২০০৯ সালে আইপিএল অভিষেকটা দিল্লির জার্সিতে হলেও বর্তমানে তিনি সানরাইজার্স হায়াদ্রাবাদের অবিচ্ছেদ্য অংশ। এই তালিকায় তিনিই একমাত্র ক্রিকেটার যিনি আইপিএলে ৫০০০+ রান করেছেন। ব্যাট হাতে ১৪১.৫৪ স্ট্রাইক রেটে ৪ টা সেঞ্চুরি এবং ৪৮ টা হাফ সেঞ্চুরির মিশেলে ৪২.৭২ গড়ে করা ৫২৫৪ রানই প্রমাণ করে দেয়, তিনি ঠিক কতটা ধারাবাহিক।

 

৫. ডোয়াইন ব্রাভো (১৪০ ম্যাচ)

তাকে চাইলে 'টি টুয়েন্টির ফেরিওয়ালা' নামেও ডাকা যায়। কারণ, সারাবছরই বিশ্বজুড়ে ফ্রাঞ্চাইজি ট্যুর্নামেন্টগুলোতে রীতিমতো দাঁপিয়ে বেড়ান তিনি। বল হাতে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানের নাভিশ্বাস তুলতে তার জুড়ি মেলা ভার, তার ওপর রয়েছে লোয়ার অর্ডারে ব্যাট হাতে দ্রুত রান তোলার ক্ষমতা- এসবকিছু মিলিয়ে তিনি যেন টি-টুয়েন্টির 'হট কেক'! অন্তত পরিসংখ্যান তাই-ই বলে। আইপিএলে মিডিয়াম পেস বোলিংয়ে ১৪০ ম্যাচে মাত্র ২৪.৮২ গড়ে ১৫৩ উইকেট শিকারের পাশাপাশি উইলোখন্ড হাতে ১২৮.২৩ স্ট্রাইক রেটে ১৪৯০ রান তার দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের সাক্ষ্যই বহন করে। আসন্ন আইপিএলেও তিনি যে নিঃসন্দেহে অধিনায়কের 'তুরুপের তাস' হবেন, তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা।

  • ট্যাগস

এ বিভাগের আরও নিউজ

তাসকিন এবং বাংলাদেশ ক্রিকেটের আক্ষেপ

শনিবার, ০৩ এপ্রিল ২০২১, দুপুর ১:০৬

আরিফুল হক বিজয়ঃ বাংলাদেশের ক্রিকেটে গতির ঝড়টা শুরু হয়েছিলো গোলাম নওশের প্রিন্সকে দিয়ে। এরপর ধুমকেতুর মতো আগমন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার। দুরন্ত গতিতে বিরতিহীন ছুটতে গিয়ে লাইনচ্যুত হয়ে

রকিবুল হাসান এবং একটি 'জয় বাংলা' ব্যাটের গল্প

মঙ্গলবার, ৩০ মার্চ ২০২১, সকাল ১০:০৯

মুহাম্মদ আশিক সৈকতঃ ১৯৭১ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি। রুম নম্বর ৭০৭, হোটেল পূর্বাণী। ওপেনার রকিবুল হাসান বসে বসে ভাবছেন আগামীকালের ম্যাচে সুযোগ পাবেন কিনা। উল্লেখ্য, ঢাকায় সেসময় খেলতে এসেছ

ত্রয়ী ফরম্যাটের ফাইফার শিকারীরা

বৃহস্পতিবার, ২৫ মার্চ ২০২১, দুপুর ১২:২৬

দেশের জার্সিতে ইনিংসে পাঁচ উইকেট শিকার যেকোন বোলারের জন্যই এক তীব্র বাসনা বা স্বপ্নের জায়গা। আর এ স্বপ্নপূরণ যদি হয় ক্রিকেটের ত্রয়ী সংস্করণেই, তাহলে সে তো সোনায় সোহাগাই বটে। ক্রিকে

পাকিস্তানের দক্ষিন আফ্রিকা সফর, ২০২১

দক্ষিন আফ্রিকা  পাকিস্তান

১৪ এপ্রিল ২০২১, সন্ধ্যা ৬:৩০

আইপিএল, ২০২১

সানরাইজার্স হাইদ্রাবাদ  ব্যাঙ্গালুরো

১৪ এপ্রিল ২০২১, রাত ৮টা

আইপিএল, ২০২১

রাজস্থান রয়েলস  দিল্লী ক্যাপিটালস

১৫ এপ্রিল ২০২১, রাত ৮টা

পাকিস্তানের দক্ষিন আফ্রিকা সফর, ২০২১

দক্ষিন আফ্রিকা  পাকিস্তান

১৬ এপ্রিল ২০২১, সন্ধ্যা ৬:৩০

আইপিএল, ২০২১

পাঞ্জাব কিংস  চেন্নাই সুপার কিংস

১৬ এপ্রিল ২০২১, রাত ৮টা

আইপিএল, ২০২১

দিল্লী ক্যাপিটালস উইকেটে জয়ী

২য় ম্যাচ, মুম্বাই

পাকিস্তানের দক্ষিন আফ্রিকা সফর, ২০২১

পাকিস্তান উইকেটে জয়ী

১ম টি-টুয়েন্টি, জোহানসবার্গ

আইপিএল, ২০২১

ব্যাঙ্গালুরো উইকেটে জয়ী

১ম ম্যাচ, চেন্নাই

পাকিস্তানের দক্ষিন আফ্রিকা সফর, ২০২১

পাকিস্তান ২৮ রানে জয়ী

৩য় ওয়ানডে, সেঞ্চুরিয়ান

পাকিস্তানের দক্ষিন আফ্রিকা সফর, ২০২১

দক্ষিন আফ্রিকা ১৭ রানে জয়ী

২য় ওয়ানডে, জোহানসবার্গ

আইপিএল, ২০২১

৯ এপ্রিল ২০২১ -  ৩০ মে ২০২১

পাকিস্তানের দক্ষিন আফ্রিকা সফর, ২০২১

২ এপ্রিল ২০২১ -  ১৬ এপ্রিল ২০২১